লম্বা হওয়ার উপায় ও যোগ ব্যায়াম – উচ্চতা বৃদ্ধির টিপস

প্রিয় পাঠক আপনি কি লম্বা হওয়ার উপায় ও লম্বা হওয়ার ব্যায়াম সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আজকের এই আর্টিকেলটি পড়লে আপনি জানতে পারবেন, কি করলে গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি পায়? লম্বা হওয়ার জন্য কোন ব্যায়াম করতে হবে? ১৮ বছরের পর কি লম্বা হওয়া যায়? প্রাকৃতিক উপায়ে মেরুদন্ড লম্বা করার উপায়, ৫ ৬ ইঞ্চি লম্বা হওয়ার উপায় ও ব্যায়াম সম্পর্কে। 

আপনি যদি আপনার উচ্চতা নিয়ে সন্তুষ্ট না হয়ে থাকেন তাহলে জেনে রাখুন যোগ ব্যায়াম করলে কি ২০ বছরের পর লম্বা হওয়া যায়, প্রাকৃতিক উপায়ে, বাস্কেটবল খেলে, ইসলামিক উপায়ে লম্বা হওয়া যায়।

তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক আসলেই কি ৫ থেকে ৬ ইঞ্চি লম্বা হওয়া যায় কিনা।

লম্বা হওয়ার সহজ উপায়

লম্বা হওয়ার ব্যায়াম সম্পর্কে জানার পূর্বে আসুন লম্বা হওয়ার কিছু সহজ উপায় সম্পর্কে প্রথমেই জেনে নেয়া যাক।

নিম্নলিখিত পদ্ধতি গুলো আপনার দৈনন্দিন রুটিনে অন্তর্ভূক্ত করলে কিছুদিনের মধ্যেই আপনার উচ্চতার পার্থক্য লক্ষ্য করতে পাবেন। 

  • দেহভঙ্গি উন্নত করা: হাঁটা, বসা ও ঘুমানোর ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট নিয়ম অনুযায়ী দেহভঙ্গি করুন। হাঁটা ও বসার সময় ঘাড় ও মেরুদণ্ড সোজা রাখা। 

যদি আপনাকে দীর্ঘক্ষণ বসে থাকতে হয়, আপনার পা ৩০° কোণে রেখে বসুন এবং নিশ্চিত করুন যে আপনার পা মাটি স্পর্শ করছে।

ঘুমানোর সময় আমাদের মেরুদন্ড বেশির ভাগ সময় সংকুচিত হয়, ঘুমানোর সময় পিঠের উপর সমস্ত চাপ রাখুন। মেরুদণ্ড কুঁজো করবেন না। মেরুদন্ড কুঁজো করে দাঁড়ালে আপনাকে এমনিতেই স্বাভাবিকের চেয়ে খাটো দেখা যায়।

  • পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমান: ঘুমের সময় আপনার শরীরের বৃদ্ধি হরমোন নিঃসরণ সঠিকভাবে হয়। তাই প্রতিদিনের পর্যাপ্ত  আপনার লম্বা হওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয়। তাই লম্বা হওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায় হচ্ছে সঠিক সময়ে পরিমাণ মতো ঘুমান।

উচ্চতা বাড়াতে প্রতিদিন অন্তত ৮ ঘণ্টা ঘুমের অভ্যাস করুন। রোজ একটি নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমানোর অভ্যাস করুন। গভীরভাবে ঘুমালে পিটুইটারি  গ্রন্থি থেকে গ্রোথ হরমোন নিঃসরণ সঠিকভাবে হতে পারে।

  • সুষম খাদ্য গ্রহণ: আপনার শরীরের সঠিক বৃদ্ধি এবং বিকাশ এর জন্য সুষম খাদ্য অপরিহার্য। প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, এবং ভিটামিন যুক্ত সুষম খাদ্য আপনার লম্বা হতে সাহায্য করবে। 
  • অস্বাস্থ্যকর অভ্যাস এড়িয়ে চলুন : ধূম*পান, অ্যাল*কোহল পান, এবং অপ্রয়োজনীয় ওষুধ গ্রহণ আপনার বৃদ্ধিকে বাধাগ্রস্ত করতে পারেন এবং স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে।

কি করলে গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি পায়

আপনার গ্রোথ হরমোন গুলো যদি সঠিকভাবে কাজ করতে না পারে তাহলে আপনার উচ্চতা যথেষ্ট বৃদ্ধি পাবে না। কি করলে গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি পায় তা জানার পূর্বে চলুন জেনে নেয়া যাক, কোন জিনিসগুলো বৃদ্ধি হরমোন কে বাধা দেয়।

  • অতিরিক্ত মানসিক চাপ
  • খাদ্যে অতিরিক্ত চিনি 
  • হাইপারিনসুলিনমিয়া
  • স্থূলতা
  •  থাইরয়েড
  • যকৃতের ক্ষতি
  • অ্যালকোহল
  • বয়স

তাহলে গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি বাধাগ্রস্ত হয়।

আপনি কিন্তু প্রাকৃতিক উপায়ে মাধ্যমে গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি করতে পারবেন। আপনার হাইপোথেলামাস ব্রেইন থেকে পিটুইটারি গ্রন্থিতে সিগন্যাল পাঠায় গ্রোথ হরমোন নিঃসরণ এর জন্য। তাহলে বুঝতেই পারছেন গ্রোথ হরমোন পিটুইটারি গ্রন্থিতে তৈরি হয়। এবার চলুন জেনে নেয়া যাক কি করলে গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি পায়।

  • সঠিক সময়ে পর্যাপ্ত পরিমাণ গভীর ঘুম।
  • তীব্র ব্যায়াম করুন যেন আপনার শরীরের প্রতিটি অঙ্গ সঠিকভাবে কাজ করতে পারেG
  • শরীরে শর্করার মাত্রা কম রাখার চেষ্টা করুন
  • আপনার খাদ্যে অ্যামাইনো এসিড অন্তর্ভুক্ত করুন (প্রোটিন জাতীয় খাবার)
  • নিয়মিত উপবাস করার মাধ্যমে গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি করা সম্ভব
  • আপনার খাদ্যতালিকায় নিয়াসিন (বি ভিটামিন) অন্তর্ভুক্ত করুন
  • সূর্যের আলোতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ডি রয়েছে। তা আপনার গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে। তাই দিনের বেলা কিছুক্ষণের জন্য হলেও সূর্যের আলোতে থাকার চেষ্টা করুন।

লম্বা হওয়ার জন্য কোন ব্যায়াম করতে হবে

আপনার জীবনযাত্রার মানের পরিবর্তন করা ছাড়াও লম্বা হওয়ার জন্য আপনি কিছু নির্দিষ্ট ব্যায়াম করতে পারেন। এই ব্যায়ামগুলো আপনার বেশি প্রসারিত এবং শক্তিশালী করতে এবং আপনার দেহভঙ্গি উন্নত করার উন্নত করতে সাহায্য করবে, সময়ের সাথে সাথে আপনার উচ্চতা বৃদ্ধি পাবে।

  • যোগ ব্যায়াম: যোগব্যায়াম প্রাকৃতিকভাবে  আপনার উচ্চতা বাড়ানোর জন্য এটি কার্যকরী পদ্ধতিয। কিছু যোগব্যায়াম ভঙ্গি, যেমন নিম্নমুখী কুকুর এবং কোবরা, আপনার মেরুদণ্ডকে সোজা করতে লম্বা করতে এবং দেহভঙ্গি উন্নত করতে সাহায্য করতে পারেন। অন্যান্য যোগব্যায়ামের মধ্যে রয়েছে যেমন পর্বত ভঙ্গির, গাছের গুড়ি, আপনার পায়ের পেশী শক্তিশালী করতে এবং আপনার  শরীরের ভারসাম্য উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে।
  • ঝুলে থাকার ব্যায়াম: একটি বার বা শক্ত গাছের ডাল থেকে ঝুলে থাকা আপনার মেরুদণ্ডকে ডিকম্প্রেস করতে এবং আপনার ধড়কে লম্বা করতে সাহায্য করবে। এই অনুশীলনটি প্রথমে চ্যালেঞ্জিং হতে পারে, তবে সময়ের সাথে সাথে এটি আপনার জন্য সহজ হতে থাকবে, তখন আপনি সময় বাড়িয়ে ধীরে ধীরে অনুশীলন করবেন।, কিছুদিন পর আপনি নিশ্চয়ই ফলাফল দেখতে পাবেন।
  • পাইলেটস: পাইলেটস হল একটি কম-প্রভাবিত ব্যায়াম যা আপনার দেহভঙ্গি উন্নত করতে এবং আপনার মূল পেশীকে শক্তিশালী করতে সাহায্য করতে পারে। আপনার পেশির এবং স্থিতিশীলতা  উন্নত করে। আপনার কশেরুকার মধ্যে আরো পর্যাপ্ত জায়গা তৈরি করতে পারেন এবং আপনার সামগ্রিক উচ্চতা অবশ্যই বৃদ্ধি পাবে।
  • সাঁতার: সাঁতার আপনার শরীরের পেশিকে প্রসারিত করতে এবং শক্তিশালী প্রত্যেকটি দুর্দান্ত উপায় হিসেবে কাজ করে এবং আপনার কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের উন্নতি করে। আপনার নিয়মিত ফিটনেস রুটিনে সাঁতারকে অন্তর্ভুক্ত করলে আপনার শারীরিক ভঙ্গি উন্নত হবে এবং সময়ের সাথে সাথে উচ্চতা বৃদ্ধি পাবে।

কিভাবে ব্যায়াম করলে তাড়াতাড়ি লম্বা হওয়া যায়

লম্বা হওয়ার উপায় ও যোগ ব্যায়াম উচ্চতা বৃদ্ধির টিপস
লম্বা হওয়ার উপায় ও যোগ ব্যায়াম উচ্চতা বৃদ্ধির টিপস

এটা মনে রাখবেন যে উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য কোন দ্রুত সমাধান নেই। নিয়মিত ব্যায়াম পুষ্টিকর খাবার এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের মাধ্যমে আপনার শরীরের বৃদ্ধিতে প্রভাবিত করতে পারেন। ব্যায়াম করে তাড়াতাড়ি লম্বা হওয়ার জন্য আপনি কোরকে টার্গেট করে এবং মেরুদণ্ড প্রসারিত করে এমন ব্যায়ামের দিকে মনোযোগ দিতে পারেন। উপরে উল্লিখিত লম্বা হওয়ার ব্যায়াম থেকে আপনি পছন্দ করে নিতে পারেন আপনি নিয়মিত কোন এক্সারসাইজটি করতে চান। 

আপনার পছন্দমত খেলাধুলা তে অংশগ্রহণ, নাচের ক্লাসে অংশগ্রহণের মাধ্যমে কিংবা হাঁটা বা দৌড়ানোর মাধ্যমে আপনি তাড়াতাড়ি লম্বা হতে পারেন। তার সাথে পুষ্টিকর খাবার, প্রচুর পানি পান করা, এবং সঠিক সময়ে ঘুমানো অন্তর্ভুক্ত রাখতে হবে। 

যেকোনো স্বাস্থ্যগত পরামর্শের জন্য অবশ্যই নিবন্ধিত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না।

১৮ বছরের পর কি লম্বা হওয়া যায়

১৮ বছরের পর সাধারণত উল্লেখযোগ্যভাবে লম্বা হওয়ার পরিমাণ কমে যায় কিন্তু উচ্চতা বৃদ্ধি করা সম্ভব। সাধারণত মানুষ 18 থেকে 20 বছরের মধ্যে লম্বা হয়ে থাকে তবে কিছু মানুষ বছরের মধ্যে ও ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পায়। কিন্তু একবার হারের বৃত্তে বন্ধ হয়ে গেলেও উচ্চতা বাড়ানো একটু কষ্ট করে রয়ে যায়। কিছু ব্যায়াম পুষ্টিকর খাদ্য গ্রহণ এবং এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের মাধ্যমে ১৮ বছরের পরেও লম্বা হওয়া সম্ভব তাই হতাশ হওয়ার কিছু নেই।

যোগ ব্যায়াম করলে কি ২০ বছরের পর লম্বা হওয়া যায়

যদিও 20 বছরের পর লম্বা হওয়ার কোনো গ্যারান্টি যুক্ত উপায় নেই তবে উনি স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের মাধ্যমে আপনার গ্রোথ হরমোন বৃদ্ধি অব্যাহত রাখতে পারেন। যেমন যোগব্যায়াম মানসিক চাপ কমাতে দেহের শিথিলতা বাড়াতে সাহায্য করতে পারে যার ফলস্বরূপ আপনার গ্রোথ হরমোন উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে।  আবার উচ্চতা উপর জেনেটিক্যাল প্রভাব রয়েছে । অনেকেই বংশগতভাবে খাটো হয়ে থাকে, তাই স্বাস্থ্যকর জীবন যাপনে অভ্যস্ত হয়ে আপনি কিছুটা হয়তো উচ্চতা বৃদ্ধি করতে পারেন।

প্রাকৃতিক উপায়ে মেরুদন্ড লম্বা করার উপায়

আপনার দৈনন্দিন রুটিনে পরিবর্তন আনুন যখনই বসবেন সোজা হয়ে বসার চেষ্টা করবেন। দাঁড়ানোর সময় মেরুদণ্ড সোজা করে দাঁড়ানোর চেষ্টা করুন।

  • শায়িত বাহু বৃত্ত
  • থোরাসিক এক্সটেনশন
  • বুকের পেশীতে সেল্ফ ম্যাসাজ করুন
  • সামনের বাহু প্রাচীর স্লাইড
  • শায়িত কোবরা
  • ঝুলন্ত ব্যায়াম

উপরে উল্লেখিত  ব্যায়ামগুলো মেরুদণ্ড সোজা এবং লম্বা করার জন্য নিয়মিত করতে পারেন। এছাড়াও আপনি নাচ বা বাদ্যযন্ত্র বাজানো ক্লাসের যোগ দিতে পারেন।

বাস্কেটবল খেলে কি উচ্চতা বাড়ে

বাস্তব বাস্কেটবল খেলা সরাসরি উচ্চতা বাড়াতে পারে না, তবে খেলাধুলা প্রচুর লাফানো এবং দৌড়ানো জড়িত তাই আপনার, যা হাড়ের বৃদ্ধিতে সাহায্য করতে পারে এবং সামগ্রিক ফিটনেসে উন্নত করতে পারেন। উপরন্তু, বাস্কেটবলের সাথে জড়িত শারীরিক পুনরাবৃত্তি নড়াচড়া আপনার স্যারের অনুরোধ হরমোন উৎপাদন বৃদ্ধি করার মাধ্যমে আপনার উচ্চতা বৃদ্ধিতে অবদান রাখতে পারে।

৫ ৬ ইঞ্চি লম্বা হওয়ার উপায় ও ব্যায়াম

৫-৬ ইঞ্চি উচ্চতা বৃদ্ধি একটি উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি, এবং এটি লক্ষ্য করা গুরুত্বপূর্ণ যে এটি অর্জনের কোন নিশ্চিত উপায় নেই। যাইহোক, কিছু জিনিস যা সাহায্য করতে পারে অন্তর্ভুক্ত:

  • একটি স্বাস্থ্যকর এবং সুষম খাদ্য খাওয়া যাতে প্রচুর প্রোটিন, ভিটামিন এবং খনিজ থাকে
  • স্ট্রেচিং এবং শক্তি-প্রশিক্ষণ ব্যায়াম সহ নিয়মিত ব্যায়াম করা
  • ভাল ভঙ্গি অনুশীলন করা এবং ভাল অঙ্গবিন্যাস প্রচার করে এমন ক্রিয়াকলাপগুলিতে জড়িত হওয়া
  • সামগ্রিক বৃদ্ধি এবং বিকাশের জন্য পর্যাপ্ত ঘুম পাওয়া
  • এটি মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে জেনেটিক্স উচ্চতা নির্ধারণে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং কিছু লোক এই পদ্ধতিগুলির মাধ্যমে উচ্চতায় এতটা উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি অর্জন করতে সক্ষম নাও হতে পারে।

লম্বা হওয়ার ইসলামিক উপায়

আল্লাহ তাআলা যাকে যেমন বানিয়েছেন তা নিয়ে শুকরিয়া আদায় করা দরকার। তারপরেও আল্লাহ যেহেতু সর্বদাতা আল্লাহর উপর পূর্ণ বিশ্বাস রাখলে, আমলের মাধ্যমে এবং সুস্থ জীবনযাপনের মাধ্যমে লম্বা হওয়ার। এখানেই আমি দুইটি আমল উল্লেখ করলাম না সঠিকভাবে করার মাধ্যমে আপনার উচ্চতা কিছুটা বাড়তে পারে।

প্রথম আমল

আল্লাহ তায়ালার ৯৯টি গুণবাচক নামের  একটি হল ইয়া সামিউ (সর্বশ্রোতা)।

  • আপনি তিন বেলা খাবার খাওয়ার সময় আল্লাহ তায়ালার এই বিশেষ নামটি পাঠ করবেন মানে সকাল, দুপুর, এবং রাতের খাবার। তারপর বিসমিল্লাহ বলে খাওয়া শুরু করুন এই নামের অর্থ সর্বশ্রোতা।
  • রাতে খাওয়ার আগে দুরূদ শরীফ পাঠ করে একশত বার আল্লাহর খাস নামটি পাঠ করে খাওয়া শুরু করুন এবং খাওয়ার পর পুনরায় দুরূদ শরীফ পাঠ করুন এবং আল্লাহর খাস নামটি একশত বার পাঠ করুন।

আল্লাহ আপনার দোয়া কবুল করবেন ইনশাআল্লাহ।

দ্বিতীয় আমল

  • প্রথমে তিনবার দরুদ শরীফ পাঠ করুন
  • তারপর তিনবার পবিত্র কুরআনের এই আয়াতটি পাঠ করুন 

         “আলিফ-লাম-র, তিলকা আয়াতুল কিতাবিল মুবিন”

                                                                                  (সূরা ইউসুফ-০১)

  • তারপর তিনবার পাঠ করুন
  • আর রহিমু, আর রহিমু, আর রহিমু, ইয়া আল্লাহু, ইয়া মুরিদু
  • তারপর ৩ বার দরুদ শরীফ পড়ে পানিতে ফু দিয়ে দিয়ে সে পানি পান করতে হবে।
  • পানি সুন্নত তরিকায় ৩ নিঃশ্বাসে পান করতে হবে।

* এক্সারসাইজ কখন করা ভালো? ব্যায়াম করার সঠিক সময় জানুন *

পরিশেষে,

 লম্বা হওয়ার সহজ কোন উপায় নেই। কিছু ব্যায়াম করার মাধ্যমে আপনি ১৮ বছরের পর লম্বা হতে পারে। আপনি যদি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন তাহলে, লম্বা হওয়ার সহজ উপায় ও ব্যায়াম, প্রাকৃতিক উপায়ে মেরুদন্ড লম্বা করার উপায়, লম্বা হওয়ার ইসলামিক উপায়, এবং যোগ ব্যায়ামের মাধ্যমে উচ্চতা বৃদ্ধির টিপস জানতে পেরেছেন। যদি আপনার উপকারে এসে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

Leave a Comment